সাতকানিয়ায় সরকারি চাকুরীর দাপটে বলি অসহায় নারী

প্রকাশিত: ৮:৪০ অপরাহ্ণ, মার্চ ১০, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় সরকারি চাকুরীর দাপটে বলি হলেন এক অসহায় নারী। এ ঘটনায় ওই নারীর স্বামী থানায় এজাহার দায়ের করেছেন।

মঙ্গলবার (৯ মার্চ) সন্ধ্যায় সাতকানিয়ার মরফলা মুন্দার পাড়ায় এ ঘটনাা ঘটে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, মরফলা মুন্দার পাড়ার মৃত আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে মো. ইসমাঈল (৫৫)’র সাথে একই এলাকার আব্দুর শুক্কুরের ছেলে মো. লোকমান (৩২), মো. আরমান (২৮), মো. হারুন (২৫) ও মো রিদুয়ান (২৩)’র বসতবাড়ির চলাচলের রাস্তা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। গত ৭ মার্চ সকাল ৮টায় কাজের লোক দ্বারা বিল্ডিং নির্মাণের কাজ শুর করে ইসমাঈল। কিন্তু বিরোধের জের ধরে ৯ মার্চ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নিজের দাবি করে ওই জায়গায় নির্মাণ কাজে বাধা দেয় বিবাদীরা। তাদের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ইসমাঊলকে গালিগালাজসহ বিভিন্ন হুমকি প্রদান করে তারা। ঘটেনার বিষয়টি এলাকায় গণ্যমান্য লোকদেরকে অবহিত করলে বিবানীগণ ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ধ্যা ৬টার দিকে অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বাড়ির উঠানেে এসে ইসাঈলকে মারধর করার জন্য খোঁজাখুঁজি করে।

একপর্যায়ে তারা তাকে না পেয়ে বাড়ির সদস্যদেরকে উদ্দেশ্যে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। তখন তার স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস (৪৬) প্রতিবাদ করলে উপরােক্ত বিবাদীগণ তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। এ সময় তাদের আঘাতে মারাত্মক জখম হয় তার। মারধরের সময় পরনে থাকা কাপড় চোপড়ও টানা হেচড়া করে শ্লীলতাহানী করা হয় ওই নারীর।

এ সময় তার চিৎকার শুনে দেবর মো. ইদ্রিসের স্ত্রী সেনােয়ারা বেগম (৩৫) তাকে উদ্ধারের জন্য গেলে লোহার রড দিয়ে থাকেও আঘাত করে আহত সন্ত্রাসীরা।

উল্লেখ্য, স্থানীয়দের অভিযোগ লোকমান পুলিশ বিভাগে চাকুরী করায় তার বেপরোয়া দাপুটে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ