লাকড়ি আনতে গিয়ে হাতির আক্রমণে প্রাণ গেল গৃহবধূর

সাতকানিয়ার চরতী

 

নিজস্ব প্রতিবেদক 

চা বাগানে লাকড়ি সংগ্রহ করতে গিয়ে বন্যহাতির আক্রমণে প্রাণ হারালেন সাতকানিয়ার এক নারী। শুক্রবার (৮ মার্চ) সকাল ১১ টার দিকে চট্টগ্রামের বাশঁখালী থানাধীন বেঁলগাও চা বাগানে লাকড়ি সংগ্রহে গিয়ে হাতির আক্রমণে নিহত হন ৪২ বছর বয়সী হাছিনা আক্তার। নিহত হাছিনা সাতকানিয়া উপজেলার চরতী ইউনিয়নের দুরদুরী গুনাপাড়ার  মৃত লেদু মিয়ার স্ত্রী।

জানা যায়, হাছিনা বেগম ও তার মা ছারা খাতুনসহ কয়েকজন নারী লাকড়ি সংগ্রহের জন্য সাতকানিয়া-বাঁশখালী মাঝামাঝি একটি পাহাড়ে যান। এ সময় বন্যহাতি আসতে দেখে অন্যরা পালিয়ে গেলেও অসুস্থ শরীর নিয়ে দৌঁড়াতে পারননি হাছিনা। এ সময় তাকে মাটিতে আছড়ে ছেলে শরীর ক্ষতবিক্ষত করে ফেলে হাতি। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

 

নিহত হাছিনা আক্তারের ছেলে সায়েম বলেন, আমার মা শহরে চাকরি করেন এবং প্রতি শুক্রবার ছুটির দিনে গ্রামে আসেন। বাড়িতে লাকড়ি না থাকায় আমার নানু আর মা পাহাড়ে লাকড়ি সংগ্রহ করতে  যান। নানু ছিলেন পাহাড়ের উপরে  আর মা ছিলেন নিচে। এমন সময় প্রথমে একটি হাতি এসে আমার মাকে পাকড়াও করে এবং পরে ছয়টি হাতি এসে মাকে মাটিতে আছড়ে শরীর ছিঁড়ে ফেলে।

তিনি আরও বলেন, আমার কোনো ভাই-বোন নেই, পরিবারে আমি একা। বাবা আজ থেকে ১৪ বছর আগে এলাকার গহীন পাহাড়ে সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত হন।

 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম ও মোহাম্মদ আলী। চরতি উইপি চেয়ারম্যান রুহুল্লাহ চৌধুরী বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত মর্মান্তিক। প্রতিবছর এ এলাকায় বন্যহাতির আক্রমনের শিকার হচ্ছে লোকজন।

যোগাযোগ করা হলে বন বিভাগের কালিপুর রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. মনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমি একটি ট্রেনিংয়ে আছি, বিষয়টি আমার জানা নেই।’

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.