ঈদগাঁওতে প্লাস্টিক সামগ্রীর কাছে হার মানলো বাঁশ-বেত

ঈদগাঁও প্রতিনিধি

 

কক্সবাজার সদরে ঈদগাঁওতে ডিজিটালের যুগে প্লাস্টিক সামগ্রীর কাছে হার মানল বাঁশ ও বেত। বৃহত্তর এলাকায় বিভিন্ন গ্রামে ব্যবসায় পুঁজি খাটিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন অনেক বাঁশ-বেতের সামগ্রী দিয়ে। বর্তমান সময়ে প্লাস্টিকের হরেক রকমের সামগ্রী পর্যাপ্ত পাওয়ায় এখন বাঁশ ও বেত হারিয়ে যাচ্ছে অনায়াসে। পূর্বেকার দিনে বৃহত্তর ঈদগাঁওর অধিকাংশ লোকই বাঁশ-বেতের টুকরি,খাচা,চাটাই,খলই ইত্যাদি বানিয়ে জীবিকা নির্বাহ করত। বয়োবৃদ্ব আহমদ হোসনসহ কয়জন জানালেন, এক সময়ে ছেলে আর বুড়ো থেকে শুরু করে কিশোরী গৃহিণীরা সবাই ব্যস্ত বাঁশ-বেতের তৈরি বিভিন্ন সাংসারিক সরঞ্জাম তৈজসপত্র তৈরিতে। এখনকার দিনে খোঁজলেও হয়ত মিলবেনা এসব জিনিস। পূর্বেকার দিনের বেশিরভাগ মানুষ এই পেশা থেকে অন্য পেশার চলে যাচ্ছেন বা গেছে। বাপ-দাদার এই কাজে তেমন আর আয় নেই। বাঁশের পণ্য তৈরিতে কাঁচামাল সংকটের কারণে ও অনেকে আগ্রহ দেখাননা এসব কাজকর্মে। আরো জানা যায়, গ্রাম বাংলার মানুষের সাংসারিক কাজের বেশিভাগ জিনিস এ শিল্পের মাধ্যমে চাহিদা মিটিয়ে আসত। কিন্তু দিন বদলের এই যুগে সবখানে প্লাস্টিক সামগ্রী ছেয়ে গেছে। যাতে করে বাঁশ ও বেতের সাহায্যে কতইনা কারুকায্যের দিন শেষ। মাছ শিকারের যন্ত্রপাতি থেকে শুরু করে অনেকটাই বানানো হয় বাঁশ-বেত শিল্পের মাধ্যমে। সবই তছনছ করে তার উপর ভাগ বসালো প্লাস্টিক সামগ্রী।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.