মিডিয়া ক্যু’র স্বীকার হতে যাচ্ছেন সাতকানিয়ার সন্তান ছাত্রদলের মহসিন

নিজস্ব প্রতিবেদক

দলের দু:সময়ের সাহসী সন্তান বিভিন্নসময় দলের স্বার্থে রাজপথে মারখাওয়া এবং কারাবরণও করতে হয়েছিলো এমন ত্যাগী চট্টগ্রাম দক্ষিনজেলা ছাত্রদলের বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক মহসিনকে সামাজিক ও দলীয় ভাবে হেয় করার নিমিত্তে উদ্দ্যেশ্য প্রনোদিত ভাবে চট্টগ্রাম দক্ষিনজেলা ছাত্রদলের সভাপতি শহিদুল আলম শহিদের সাথে ঘটে যাওয়া একটি ঘটনার সাথে বার বার একই প্যানেলের সাধারন সম্পাদক মহসিনকে জড়িয়ে একটি কল্পকাহিনী রচিত করতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম দক্ষিনের বিএনপিও তার অঙ্গসংগঠনের একাংশের একটি কুচক্রী মহল।

কিন্তু প্রকৃত সত্য কখন কি বিষয়ে এবং কোন তারিখে দক্ষিন জেলা ছাত্রদলের সভাপতি হামলার স্বীকার হয়েছেন,আসলে আদৌ হামলার স্বীকার হলো কিনা কোথাও তার কোন সঠিক তথ্য গনমাধ্যমে উপস্থাপিত হয়নি,কিন্তু বার বার একটি স্বার্থন্বেসীমহল চট্টগ্রাম দক্ষিনজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মহসিনকে জড়িয়ে বিভ্রান্ত ছড়িয়ে ঘোলাটে পরিবেশ রচিয়তা করার জন্য স্বপ্নে বিভোর।

কিন্তু প্রকৃত ঘটনা সম্পূূর্ন ভিন্ন,গনমাধ্যমে কোথাও নিউজ হয় চট্টগ্রাম কক্সবাজার সড়কের সাতকানিয়া আওতাধীন এলাকায়,আবার পাঠকপ্রিয় প্রতিষ্ঠিত কিছ গনমাধ্যমে খবর পরিবেশন করা হয়েছে চট্টগ্রাম মহানগরেই হামলা চালানো হয়েছে।

এদিকে ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক মহসিন বলেন,আসলে আমিও বুঝতেছিনা কেন আমাকে নিয়ে একটি মহল এটা করবে আসলে হচ্ছেটা কী রাজনীতিতে প্রতিযোগীতা থাকতেই পারে তবে প্রতিহিংসা কেন? আমি এটার সুষ্ট তদন্ত করে উচিত ব্যবস্থা চাই

 

জানা গেছে, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্র দলের সভাপতি মোহাম্মদ শহিদুল আলম শহিদের উপর চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে আসার পথে গত ২৮ জুন সাতকানিয়ায় রাতের আঁধারে মুখোশধারী কিছু যুবক গাড়ি আটকে হত্যা চেষ্টা চালায়। ঘটনার পরদিন গত ২৯ জুন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান ও সদস্য সচিব মোস্তাক আহমদ খান দক্ষিণ জেলা ছাত্র দলের সভাপতি শহিদুল আলমের উপর হামলা কারীদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে বিবৃতি দেন। ঘটনার সাথে যে দলের যে জড়িত থাকুক না কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। গত ১৩ জুলাই ছাত্র দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ দপ্তর সম্পাদক আজিজুল হক সোহেলের স্বাক্ষরিত একটি পত্রে দক্ষিণ জেলা ছাত্র দলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মহসিন, পটিয়া উপজেলা ছাত্রদল নেতা মো. রবিউল , বোয়ালখালী উপজেলা জোনায়েদ ও জামিসহ কয়েক জনের বিরুদ্ধে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শোকজ করেন। চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মহসিন দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সহ ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বে থাকা অবস্থায় দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদেকর দায়িত্ব দেয়ায় তৃণমূল নেতা কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। দক্ষিণ জেলার দায়িত্ব পাওয়ার পর দলীয় কর্মসূচিতে গরহাজির, তৃণমূল নেতা কর্মীদের সাথে যোগাযোগ না রাখাসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে মহসিনের বিরুদ্ধে।
শোকজের বিষয়ে পটিয়া উপজেলা ছাত্রদল নেতা মো. রবিউল কিছুই জানে না বলে দাবি করেন, বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্র থেকেও কেউ ফোন করেনি। তবে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মহসিন শোকজ করার বিষয়টি স্বীকার করেছেন, যথা সময়ে শোকজের জবাব দিবেন বলেও জানান, তবে ঘটনা কারা ঘটিয়েছে আমি জানি না যেহেতু কেন্দ্র থেকে আমার কাছে কৈফিয়ত চেয়েছে আমি জবাব দিব। চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মোহাম্মদ শহিদুল আলম শহিদের এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি। বিষয়টি যেহেতু কেন্দ্রীয় ভাবে মনিটরিং করা হচ্ছে সেহেতু আমি কেন্দ্রের বাইরে কিছু বলা উচিত না।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.