করোনা আক্রান্ত হয়ে মোজাম্বিকের ইয়াম্বানি প্রদেশে বাঁশখালী প্রবাসীর মৃত্যু

বাঁশখালী প্রতিনিধি :চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী উপজেলার চাম্বল ইউনিয়নের পশ্চিম চাম্বল ১ নং ওয়ার্ডের জয়নগর এলাকার মোহাম্মদ মাহমুদুল ইসলাম (৩৭) নামে এক বাংলাদেশী প্রবাসীর মৃত্যু হয়েছে। এক বাংলাদেশী প্রবাসীর মৃত্যু হয়েছে। সে দক্ষিণ পূর্ব আফ্রিকার দেশ মোজাম্বিকের ইয়াম্বানি প্রদেশের একটি হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেন। সে মোজাম্বিকের ইয়েনসুরো সিটি এলাকায় মিনি শপ মুদির দোকানের ব্যবসা ছিল। ওই এলাকায় প্রবাসীদের মধ্যে সে বড় ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত ছিল। এ নিয়ে দক্ষিণ পূর্ব আফ্রিকার দেশ মোজাম্বিকে এই নিয়ে ১৪ জন প্রবাসীর মৃত্যু হলো। তার মধ্যে বাঁশখালীর ৯ জন। মাহমুদুল ইসলামের মামী বাঁশখালী পৌরসভার ৪,৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর রোজিয়া সোলতানা রোজি বলেন,আমার ভাগিনা প্রায় বার বছর পূর্বে তিনি মোজাম্বিকে পাড়ি জমান। সেখানে ব্যবসা করে সে মোটামুটি বেশ ভালই অবস্থান করেছিল। পরবর্তীতে তার স্ত্রী ছেলে সন্তান নিয়ে স্বপরিবারে আফ্রিকা চলে যান। গত দুই -তিন মাসের মধ্যেই স্বপরিবারে দেশে আসার কথা ছিল। কিন্তু খুবই দুর্ভাগ্য বসত সে আমার মাঝ থেকে আজকে পৃথিবী ছেড়ে চির বিদায় হয়ে গেল। ব্যক্তিগত জীবনে তার এক ছেলে ও দুই মেয়ে সন্তান রয়েছে তার। আজ শনিবার (২৪জুলাই) মোজাম্বিক সময় সকাল ৭ টায় মোজাম্বিকের ইয়াম্বানি প্রদেশের স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। তিনি এক সপ্তাহ পূর্বে ভিলানকুলো হাসপাতালে ম্যালেরিয়া রোগে আক্রান্ত হলে পরবর্তীতে করোনা সনাক্ত হয়। মোজাম্বিক প্রবাসী মো. মুজিবুর রহমান বলেন, এক সপ্তাহ পূর্বে মাহমুদুল ইসলাম ম্যালেরিয়া আক্রান্ত হয়ে মোজাম্বিকের ভিলানকুল হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছিল। শারীরিক অবস্থার কোন পরিবর্তন না হলে গত ২ দিন আগে তার করোনা পরীক্ষা করানো হয়। পরবর্তীতে তার করোনা সনাক্ত হলে শারীরিক অবস্থার আরো অবনতি ঘটে। শনিবার মোজাম্বক সময় সকাল সাতটায় তিনি হাসপাতালে মারা যান।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.