ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচ: তদন্তের পর ফিফার সিদ্ধান্ত

প্রকাশিত: ১১:৪২ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০২১

স্পোর্টস ডেস্ক

রেফারির বাঁশি বাজল, খেলা শুরুও হলো তবে শুরুর চার মিনিটের মাথায় ম্যাচ রেফারি খেলা স্থগিতের ঘোষণা দিলেন। এমনটাই ঘটেছে ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে রোমাঞ্চকর এক লড়াইয়েই। সুপার ক্লাসিকোতে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার লড়াই মাঠে গড়াতেই স্থগিতের ঘোষণা আসে। লাতিন আমেরিকার ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবল রোববার রাতেই, অফিসিয়াল বিবৃতিতে জানায়, ম্যাচ রেফারি স্থগিত করে দিয়েছে ফিফা আয়োজিত বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের এই ম্যাচ।

‘ম্যাচ রেফারি ও ম্যাচ কমিশনার ফিফার শৃঙ্খলা কমিটির কাছে এ নিয়ে প্রতিবেদন দেবে। তার উপর ভিত্তি করে পরবর্তী করণীয় ঠিক করা হবে। এই প্রক্রিয়া বর্তমান নিয়ম দৃঢ়ভাবে অনুসরণ করেই এগোবে। বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব ফিফার প্রতিযোগিতা। এ ব্যাপারে সকল সিদ্ধান্ত ক্ষমতা আছে কেবল ওই প্রতিষ্ঠানেরই।’—বিবৃতিতে জানায় কনমেবল।

তবে এরপরে সুপার ক্লাসিকো স্থগিত নিয়ে প্রতিবেদন পেয়েছে ফিফা। ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার মধ্যে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ওই ম্যাচের প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে সম্ভাব্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্তা সংস্থা।

এক বিবৃতিতে সোমবার বিষয়টি জানিয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে ফিফা।

ব্রাজিলিয়ান হেলথ রেগুলেটরি এজেন্সির (আনভিসা) জানিয়েছিল, কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া ব্রিটেন, উত্তর আয়ারল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা বা ভারত থেকে ব্রাজিলে প্রবেশ নিষিদ্ধ। যাদের ছাড় দেওয়া হয়েছে, তাদের অবশ্যই (ব্রাজিলে) আসার সময় কর্তৃপক্ষকে অবগত করতে হবে এবং ১৪ দিন কোয়ারেনটাইনে থাকতে হবে।

এদিকে ইংল্যান্ড থেকে আর্জেন্টিনা দলে যোগ দেওয়া চার খেলোয়াড় কোয়ারেনটাইন নিয়ম ভেঙেছে বলে খবর আসে সংবাদমাধ্যমে। এছাড়া ম্যাচটি শুরুর ঘণ্টাখানেক আগেও রয়টার্সসহ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়, ওই চার জনকে হোটেলে আইসোলেশনে থাকতে বলেছে স্থানীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

কিন্তু ব্রাজিলের স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশনা উপেক্ষা করে তিন খেলোয়াড় গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, ডিফেন্ডার ক্রিস্তিয়ান রোমেরো ও মিডফিল্ডার জিওভানি লো সেলসোকে মাঠে নামায় আর্জেন্টিনা। পরবর্তীতে ম্যাচের পঞ্চম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেন স্থানীয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। তাদের অভিযোগের পর মাঠ ছেড়ে ড্রেসিং রুমে চলে যায় সফরকারীরা।

সুপার ক্লাসিকো স্থগিত হয়ে যাওয়ায় হতাশ আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনিও। তিনি বলেন, ‘কি ঘটেছে দেশবাসীকে জানাতে আমি এখানে এসেছি। এটা আমাকে খুব ব্যথিত করছে। আমি কাউকে দোষারোপ করতে আসিনি। তবে যদি কিছু ঘটেও থাকে সেটার জন্য বিঘ্ন ঘটানোর সময় এটা ছিল না।’

স্কালোনি জানিয়েছেন, প্রিমিয়ার লিগের খেলোয়াড়দের ব্রাজিল ম্যাচে খেলা নিয়ে আপত্তির কথা তাদের কেউ জানায়নি।

‘কোনো সময়েই আমাদের জানানো হয়নি, এরা খেলতে পারবে না। আমরা ম্যাচটা খেলতে চেয়েছিলাম, ব্রাজিলিয়ান ফুটবলাররাও।’—যোগ করেন স্কালোনি।

ম্যাচটি স্থগিত হওয়ার ঘন্টাখানেক পর ব্রাজিল ছেড়ে আর্জেন্টিনার উদ্দ্যেশ্যে রওনা দেয় কোপা আমেরিকার বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।