সাতকানিয়ায় গুলাগুলি: চাঁদাবাজির অভিযোগে পাল্টা মামলা

প্রকাশিত: ২:২০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০২১

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় গুলির ঘটনার পর মারধর ও চাঁদাবাজির অভিযোগে সাতজনকে আসামি করে পাল্টা মামলা করা হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এসএস ড্রেজার অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি লিমিটেডের প্রজেক্ট ইনচার্জ মো. মতিউর রহমান বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে এফআইআর হিসেবে গণ্য করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) আদেশ দিয়েছেন। রোববার (১০ অক্টোবর) চট্টগ্রাম সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জিহান সানজিদার আদালতে মামলাটি করা হয়।

মামলার আসামিরা হলেন- গিয়াস উদ্দিন মিন্টু, আব্দুল মালেক, মো. মহিউদ্দিন, নজরুল ইসলাম, জাহেদুল ইসলাম, রোকন উদ্দিন ও মোহাম্মদ রাকিব উদ্দিন।

মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, ২৪ কোটি টাকা ব্যয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড সাতকানিয়ার চরতি এলাকায় সাঙ্গু নদীতে ড্রেজিং প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এ প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এসএস ড্রেজার অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি লিমিটেড। এ কোম্পানির কাছ থেকে আসামিরা ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিলেন। চাঁদা না পেয়ে আসামিরা বিভিন্ন সময় আগ্নেয়াস্ত্র, ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালান। এসব ঘটনায় বাদী স্থানীয় থানায় কোনো সমাধান না পেয়ে আদালতে মামলা করেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট কামাল উদ্দিন বলেন, চাঁদাবাজি, মারধর ও হুমকির অভিযোগে সাত আসামির বিরুদ্ধে আমার মক্কেল আদালতে মামলা করেছেন। আদালত মামলাটি এফআইআর হিসেবে গণ্য করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সাতকানিয়া থানার ওসিকে আদেশ দিয়েছেন।

এর আগে ৩০ সেপ্টেম্বর একই স্থানে কৃষকদের ওপর গুলিবর্ষণের ঘটনায় সাতকানিয়া থানায় একটি মামলা করা হয়েছিল। আবদুল মালেক নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে মামলাটি করেছিলেন।