হাসপাতালটির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ

সাতকানিয়ার কেরানীহাট আশশেফা হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় গৃহবধূর মৃত্যু

প্রকাশিত: ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১, ২০২১

সাতকানিয়া প্রতিনিধি:

সাতকানিয়ায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় সুমি বড়ুয়া (২৪) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয়, রোগী মারা যাওয়ার ৩ ঘন্টা পর্যন্ত লাশ রেখে দেয়। পরে স্বজনরা জোরাজোরি করলে লাশ বের করে দেয়। এই অভিযোগে ওই নারীর স্বজন ও স্থানীয়রা হাসপাতাল অবরোধ করে।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার কেরানীহাট আশশেফা হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা বলছেন, হাসপাতালটিতে এর আগে বেশ কয়েকবার ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ উঠলেও কোনো ব্যাবস্থা নেয়নি প্রশাসন। যার ফলে ঝরে গেল আরেকটি প্রাণ।

সুমি বড়ুয়া (২৪) উপজেলার হলুদিয়া বাকরালি বিল এলাকার অতীষ বড়ুয়ার স্ত্রী এবং একই উপজেলার বড়হাতিয়া ইউনিয়নের উষা বড়ুয়ার মেয়ে।

উষা বড়ুয়া বলেন, তার মেয়ে প্রেগন্যান্ট ছিল সাড়ে নয় মাসের। রবিবার চেকাপের জন্য সকাল ১০টায় হাসপাতালে আসেন সুমি বড়ুয়া।

স্বামী অতীষ বড়ুয়া জানান, কোন চেকআপ না করেই গাইনি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে জানান তাকে সিজার করাতে হবে, না হয় বাচ্চা বাঁচানো সম্ভব হবেনা। কিছু বুজে উঠতে না পেরে সিজারের অনুমতি দেয় তারা।

রোগীর মায়ের বক্তব্য অনুযায়ী সুমি বড়ুয়া সম্পূর্ণ সুস্থ অবস্থায় নিজে পায়ে হেঁটে হাসিমাখা মূখে অপারেশন থিয়েটারে ঢুকেন। নরমাল ডেলিভারির কথা থাকলেও তারা কৌশলে রোগীর মনে ভীতি ঢুকিয়ে সিজারে নিয়ে যায়।

সুমি বড়ুয়াকে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গাইনি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হলে এর পর কোন খোঁজ দেয়নি স্বজনদের। দুপুরের পরে স্বজনরা জানতে চাইলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানান রোগীর অবস্থা ভালো না। ৩ ঘন্টা পর্যন্ত রোগীর শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে কোন কিছু না জানালে রোগীর স্বজনরা জোরাজোরি করলে রাত ৮টার দিকে সুমি বড়ুয়ার লাশ বের করে দেন।

ডাক্তার কেলেঙ্কারি, অপারেশন থিয়েটারে গাফেলতি ও লাশ আটকে রাখার বিষয়ে জানতে চাইলে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোন সদুত্তর দিতে পারেনি। বরং কোন উত্তর দিবে না বলে সাংবাদিকদের সাথে খারাপ আচরণ করেন।

হাসপাতালটির বিরুদ্ধে অভিযোগের শেষ নেই। এর আগে বেশ কয়েকবার ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ উঠলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। প্রশাসনের নাকের ডগায় রমরমা চিকিৎসা বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে তারা।

স্থানীয় কয়েকজন জানান, আশশেফা হাসপাতালে ভুল চিকিৎসার ঘটনা নিত্তনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। তারা সাধারণ মানুষের সেবার বদলে পকেট কাটছেন। অনেককে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছেন।

এই ঘটনায় রোগীর স্বজন ও স্থানীয় এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে রাতে হাসপাতাল অবরোধ করে রাখে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা সাতকানিয়া থানার এসআই মাহাবুবুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।