হাজীগঞ্জে সম্পত্তি বিরোধের জের ধরে বসত ঘর ভাঙ্গচুর

প্রকাশিত: ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ, মে ২৬, ২০২১

 

চাঁদপুর প্রতিনিধি:

 

সম্পত্তি বিরুধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় মো: রফিকুল ইসলামের বসত ঘর ভাঙ্গচুর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

রবিবার (২৩ মে)চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার ৭নং পশ্চিম বড়কুল ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামের ১নং বেপারী বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, প্রতিপক্ষ হামলা কারী মো: শহীদ বেপারী ও মো: রফিকুল ইসলাম বেপারী সহদর আপন ভাই, দীর্ঘ দিন যাবৎ তাদের সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ থাকায় মাঝে মাঝে বাক বিতর্ক হয় ।তারই ধারাবাহিকতায় রবিবার প্রতিপক্ষ মো: শহীদ বেপারী তার ছেলেদেরসহ হামলা করে ছোট ভাই রফিক বেপারীর বসত ঘর ও টিনের তৈরী বাথরোম ভাঙ্গচুর করে ।রফিকের স্ত্রী কোহিনুর বলেন- তাদের ভাগের সম্পত্তি অথচ ভোগ করতে দিচ্ছে না তারই বাসুর শহীদ বেপারী। তাদের অত্যাচারে নিজের বসতভিটায় থাকতে পারছি না থাকতে হচ্ছে বাড়া বাসায়। এ বাড়িতে আসলেই তেড়ে আসে মারতে, শুধু তাই নয় ভাড়াটে লোকজন নিয়ে এসে আমাদের উপড় হামলা চালায়। এনিয়ে চাঁদপুর আদালতে মামলা হলে আমাদের পক্ষে রায় হয় এবং স্হানীয় গন্যমান্যরা বসে একাধিকবার আমাদের সম্পত্তি বুঝিয়ে দেয়। কিন্ত কোন ভাবেই আমার বসতভিটায় আসতে পারছি না। আমার বসতভিটায় যেনো থাকতে পারি আমার ছেলে সন্তান নিয়ে এবিষয়ে আমি স্হানীয় প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি।

এবিষয়ে রফিকুল ইসলাম বেপারীর বৃদ্ধ মা রৌশনারা(৭০) জানান, আমার পৈত্তিক এই সম্পত্তি থেকে আমার ছেলেদের মাঝে সমবন্টন করে দিয়েছি। কিন্তু বড় ছেলে শহীদ বেপারী আমার মেজো ছেলে রফিকুল ইসলামকে বাড়িতে উঠতে দেয় না ওদের মারধর করে এবং বসতঘর ভাঙ্গচুর করে এবং অন্য ছেলেদের উপরও নিযার্তন করে । শুধু তাই নয় বড় ছেলে আমাকে কোন খাওয়া দেয় না বরং ছেলের বউ আমাকে কয়দিন পরপর মারধর করে, এমনকি ঈদের দিনেও আমাকে মেরে কপাল পাটিয়ে দিয়েছে । বিষয়টি বড় ছেলেকে জানালে আমাকে উল্টো অখ্যর্ত ভাষায় গালি-গালাজ করে।

স্থানীয় বাসীন্দা মজিব মিয়া বলেন- গতকালের ভাঙ্গচুরের বিষয়ে আমি শুনেছি,তাদের এই জামেলা দীর্ঘদিনের এরা কাউকে মানেনা তাই আমরা মাথা গামাই না ।

অভিযুক্ত শহীদের বক্তব্য জানতে চাইলে ঘরের দরজা বন্ধ করে সরে পড়ে ।

 

৭নং পশ্চিম বড়কুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনির হোসেন গাজী বলেন- সম্পত্তি বিরোধের বিষয়ে স্হানীয় ভাবে কয়েকবার শালিশ বৈঠকের মাধ্যমে বসে তাদের উভয়ের সম্পত্তি মাপ জরিপ করা হয়। এবং সবাইকে সম্পত্তি বুঝিয়ে দেয়ার পরও তাদের মধ্যে সমজ্তা হয়নি এবং তারা আমাদেরকে মূল্যায়ন করেনা ।