দীঘিনালায় বাল্যবিবাহ বন্ধ করলেন ইউএনও-ফাহমিদা

প্রকাশিত: ১০:১১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৬, ২০২১
 দীঘিনালা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে একটি বাল্যবিবাহ বন্ধ করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) ফাহমিদা মুস্তফা। ১৫ অক্টোবর (শুক্রুবার) একদিকে শারদীয় দূর্গাপূজার উৎসবে মেতেছে মানুষ অন্যদিকে প্রশাসনকে ফাকি দিয়ে নমব শ্রেণিতে পড়ুয়া ১৪ বছর বয়সী মেয়ের বাল্যবিবাহ নিয়ে আলোচনায় বসেন মেয়ের পরিবার। এসময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে বাল্যবিবাহের সত্যতা পাওয়া যায়। ঘটনাটি ঘটেছে দীঘিনালার ১ নং মেরুং ইউপি’র জামতলী বাঙালি পাড়া এলাকায়। পরবর্তীতে স্থানীয় হ্যাডম্যানের উপস্থিতিতে এ ধরণের কাজ আর করবে না মর্মে মেয়ের গার্ডিয়ানের মুচলেকা নেয়া হয়। এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ফাহমিদা মুস্তফা বলেন, তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পেরেছি অত্র এলাকায় একটি বাল্যবিবাহের আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে। এসময় ঘটনা স্থলে গিয়ে সত্যতা পাওয়া যায়। আর এ-ধরনের কর্মকান্ডে লিপ্ত হবেনা মর্মে মেয়ের গার্ডিয়ানের মুচলেকা নেয়া হয়েছে। বাল্যবিবাহ একটি সামাজিক অভিশাপ। এধরনের কর্মকান্ড রুখতে প্রশাসন সব সময় সোচ্চার থাকবে।